নুসরাত হত্যায় মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত আসামিদের বহনকারী গাড়ির সামনে স্বজনদের গড়াগড়ি ( ভিডিও )

ব্রিটিশ বাংলা নিউজ ডেস্ক : ফেনী জেলা কারাগারে কনডেম সেল ও ফাঁসির মঞ্চ না থাকায় নুসরাত হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামিদের মধ্যে ১২ জনকে কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে তাদের কুমিল্লা কারাগারে পাঠানো হয়। এ সময় আসামিদের আত্মীয়-স্বজনরা গাড়ির সামনে গড়াগড়ি করে কান্নাকাটি করে। দায়িত্বরত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা গাড়ির সামনে থেকে তাদের সরিয়ে দেন।

ফেনী কারা কতৃপক্ষ জানায়, ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত ১৬ আসামির মধ্যে আজ ১২ জনকে কুমিল্লা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পাশাপাশি বুধবার মহিলা দুই আসামি কামরুন নাহার মনি ও উম্মে সুলতানা ওরফে পপিকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হবে।

এছাড়া মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আরও ২ আসামি সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ সিরাজউদ দৌলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি রহুল আমিনের অন্য মামলায় আদালতে দিন ধার্য থাকায় তাদের ফেনী কারাগারে রাখা হয়েছে। তবে আদালতের কার্যক্রম শেষে তাদের ওই দিনই কুমিল্লা কারাগারে পাঠানো হবে।

গত ২৪ অক্টোবর আলোচিত নুসরাত হত্যা মামলার ১৬ আসামির সবাইকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের নির্দেশ দেন ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মামুনুর রশিদ। এসময় আসামিদের প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানাও করা হয়।

চলতি বছরের ২৭ মার্চ সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফিকে যৌন নিপীড়নের দায়ে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজউদ দৌলাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ৬ এপ্রিল ওই মাদ্রাসা কেন্দ্রের সাইক্লোন শেল্টারের ছাদে নিয়ে অধ্যক্ষের সহযোগীরা নুসরাতের শরীরে আগুন ধরিয়ে দেয়। ১০ এপ্রিল রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে মারা যান নুসরাত। এ ঘটনায় ৮ এপ্রিল মামলা করেন নুসরাতের ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook
YouTube
YouTube
error: Content is protected !!