ঢাকাবাসীদের বায়ু দূষণ থেকে বাঁচাতে আসছে বৈদ্যুতিক গাড়ি

নিউজ ডেস্ক ,ঢাকা : বিশ্বের ৬২ দেশের রাজধানীর মধ্যে ভারতের দিল্লি সবচেয়ে দূষিত। এ তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ঢাকা। এখানে প্রতি ঘনমিটারে বাতাসে ভাসমান ধূলিকণার পরিমাণ ৯৭.১ মাইক্রোগ্রাম।

আর এই দূষণে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রাখছে রাজধানীতে প্রতিদিন চলাচলকারী প্রায় ৩ লাখ যানবাহন। কিন্তু সারা বিশ্বে যেখানে দ্র্তই জনপ্রিয় হচ্ছে পরিবেশ বান্ধব নানা পরিবহণ সেখানে বদলে যাওয়া বাংলাদেশে আমাদেরও পিছিয়ে থাকবার কথা নয়।

তাই দেশের এই বায়ু দূষণ কমাতে বাজারে উন্মুক্ত হতে যাচ্ছে বৈদ্যুতিক গাড়ী ব্যাবহারের সম্ভাবনার দুয়ার। বিদ্যুৎ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের মতে , পরিবেশ বান্ধব এই যানবাহনের ব্যবহার বাড়লে প্রতি বছর সাশ্রয় হবে ২ বিলিয়ন ডলার।

আর এই নতুন বাহনের নিবন্ধনের উদ্যোগ নিচ্ছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ বিআরটিএ। পাশাপাশি বাণিজ্যমন্ত্রণালয় বলছে, সুনির্দিষ্ট প্রস্তাবের ভিত্তিতে আমদানী নীতিমালায় আনা হবে পরিবর্তন।

তাই ক্রমাগত বায়ু দুষণের কবল থেকে রাজধানী ঢাকাকে পরিত্রাণ দিতে খুলছে সম্ভাবনার দুয়ার। বর্তমানে যেহেতু সিসি ভিত্তিক রেজিস্ট্রেশন দেয়ার বিধান চালু আছে সুতরাং নিবন্ধন জটিলতা কাটাতে এরই মধ্যে উদ্যোগ নিয়েছে বিআরটিএ।

আর ব্যক্তিগত পর্যায় থেকে যখন বৈদ্যুতিক গাড়ি গণপরিবহনের রূপ নেবে তখন বাণিজ্যিক ভিত্তিতে চার্জিং স্টেশন করার ক্ষেত্রে প্রস্তুতি রয়েছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের।

গাড়ি আমদানির ক্ষেত্রে বর্তমানে ইঞ্জিন নম্বরের উপর ভিত্তি করে অনুমোদন দেয়া হয় কিন্তু বৈদ্যুতিক গাড়ীর কোন ইঞ্জিন না থাকায় আমদানী নীতিমালায় আনতে হবে পরিবর্তন।

কেবল মাত্র পরিবেশ কিংবা নাগরিক স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট ঝুঁকি হ্রাস নয় বৈদ্যুতিক গাড়ীর ব্যবহার বরং অর্থনৈতিভাবেও যথেষ্ট সাশ্রয়ী তাই আগামীর বাংলাদেশে পরিবহন খাতে ঘটতে যাচ্ছে বৈপ্লবিক পরিবর্তন, এমন প্রত্যাশা সংশ্লিষ্টদের।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook
YouTube
error: Content is protected !!